Home / ফিটনেস / ডায়েট ও ব্যায়ামের কষ্ট ছাড়াই ওজন কমান মাত্র এক সপ্তাহে!

ডায়েট ও ব্যায়ামের কষ্ট ছাড়াই ওজন কমান মাত্র এক সপ্তাহে!

হঠাৎ করে মুটিয়ে গেছেন? কিংবা সময়ের অভাবে ব্যায়াম করতে পারছেন না? আবার বিভিন্ন কারণে ডায়েটও করা হয়ছে না। তাহলে কি মোটাই থেকে যেতে হবে? একদম না, ডায়েট, ব্যায়াম করা ছাড়াও ওজন কমানো সম্ভব। কিছু নিয়ম আছে যা মেনে নিয়ে ডায়েট ছাড়াও ওজন কমানো সম্ভব। লক্ষ্য রাখুন প্রতিদিন কি পরিমাণে ক্যালরি খাচ্ছেন এবং প্রতি বার এক চুমুক করে পানি পান করুন। এটি আপনার খাওয়ার পরিমাণ অনেক খানি কমিয়ে দিবে।

১। প্রচুর পানি পান করুনঃ পানি শরীর হাইড্রেট করার পাশাপাশি আপনার ওজন কমিয়ে দিবে। পানি ক্ষুধা নষ্ট করে দেয়। আবার অনেক সময় ক্ষুধা অনুভব হলে পানি খেলে তা চলে যায়। খাওয়ার আগে দুই গ্লাস পানি পান করুন। এটি আপনাকে কম খেতে সাহায্য করবে। এছাড়া পানি শরীরে বিষাক্ত পদার্থ বের করে দেয়। আপনার কিডনি, লিভার সুস্থ রাখে।

২। তিন বেলা এবং দুইবার স্ন্যাক্স খানঃ আপনি যদি ওজন কমানোর জন্য সকালে নাস্তা বা দুপুরে খাওয়া বাদ দিন। তবে আপনি সবচেয়ে বড় ভুলটি করছেন। দিনে নিয়ম করে তিনবেলা খাবেন। আর এর মাঝে দুইবার স্ন্যাক্স। সকালের নাস্তা এবং দুপুরের খাওয়ার মাঝে একবার আর দুপুরের খাওয়া এবং বিকেলের নাস্তা এর মাঝে একবার স্ন্যাক্স খাওয়া উচিত। রাতের খাবার সন্ধ্যা হওয়ার পর পর খাওয়ার চেষ্টা করুন। বেশি রাত করে খেলে এটি আপনার হজমে সমস্যা করবে। ৩। ভালমত চিবিয়ে খানঃ ভাল করে চিবিয়ে খাবার খান। এটি আপনাকে কম খেতে সাহায্য করবে। এর সাথে এই ভাবে খাবার খেলে খাবার সহজে হজম হয়ে যাবে।

৪। সবজি ও গ্রিন টি খানঃ ভিটামিন, প্রোটিন, মিনারেল সমৃদ্ধ খাবার হল সবজি। এটি আপনার সারাদিনের খাবারে পুষ্টি পূরণ করবে। এতে খুব অল্প পরিমাণে ক্যালরি এবং ফ্যাট আছে। তাই ভাত বা মাংস খাদ্য তালিকা থেকে বাদ দিয়ে সবজি যোগ করুন। আপনি যদি ডায়েট ছাড়া ওজন কমাতে চান তবে গ্রিন টি পান করুন। এর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপাদান আপনার শরীরে মেদ কাটাতে সাহায্য করবে।

৫।  জাঙ্ক ফুড খাওয়া বন্ধ করুনঃ ওজন কমাতে চাইলে আজই জাঙ্ক ফুড খাওয়া বন্ধ করুন। এই খাবারগুলোতে পুষ্টি থাকে না কিন্তু ক্যালরি থাকে অনেক বেশি পরিমাণে। যা আপনাকে দ্রুত মুটিয়ে দেয়। স্ন্যাক্স হিসেবে আপনি ড্রাই ফ্রুটস যেমন বাদাম, কিশমিশ, খেতে পারেন। বাদাম আপনার পেটকে অনেকক্ষণ পর্যন্ত ভরিয়ে রাখবে। ৬। চিনিকে না বলুনঃ চিনি এবং চিনি জাতীয় খাদ্য দ্রব্য আপনাকে মুটিয়ে দেয়। সাথে আপনার ব্লাড সুগার বৃদ্ধি করে দিয়ে থাকে। প্রতিদিনকার খাদ্য তালিকা থেকে চিনি জাতীয় খাবার বাদ দিয়ে দিন। হঠাৎ করে চিনি খাওয়া একদম বাদ দিতে না পারলে, আস্তে আস্তে করে চিনি খাওয়া ছেড়ে দিন।

৭। এক ঘন্টা হাঁটুনঃ প্রতিদিন নিয়ম করে এক ঘন্টা হাঁটুন। এই একটি অভ্যাস আপনার ওজন weight অনেকখানি কমিয়ে দিবে। চেষ্টা করুন সকালে সূর্য উঠার সময় হাঁটার। তবে হ্যাঁ, এক ঘন্টা হাঁটবেন। ৮/ পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমঃ অনেক গবেষণায় দেখা গেছে মোটা হওয়া এবং অনিদ্রা পরস্পর সম্পর্কযুক্ত। University of Colorado,Kenneth Wright বলেছেন “ যারা পরপর পাঁচ রাত না ঘুমিয়ে থাকে, তারা প্রায় দুই পাউন্ড ওজন বৃদ্ধি করে থাকে”! অনিদ্রার কারণে মানুষের ক্ষুধা বেশি লাগে এবং বেশি পরিমাণ খাদ্য গ্রহণ করে। যার কারণে ওজন বেড়ে যায়। Wright এর মতে ব্যালেন্সড ডায়েট, ব্যায়ামের মত পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুম স্বাস্থ্যের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *