Home / ত্বকের যত্ন / সুন্দর ফর্সা ত্বক পেতে টুথপেস্টের ৪টি ব্যবহার জানুন!

সুন্দর ফর্সা ত্বক পেতে টুথপেস্টের ৪টি ব্যবহার জানুন!

টুথপেস্ট আমরা সাধারণত ব্যবহার করি দাঁতের যত্ন নেওয়ার জন্য। কিন্তু আপনার ওই টুথপেস্ট যে আপনার ত্বকেরও খেয়াল রাখতে পারে সেটা কি জানেন? ত্বকের যত্নে টুথপেস্ট দিতে পারে এমন কিছু চমকদার উপোকারিতা যা আপনার নামী দামী প্রসাধনীও দিতে পারে না। রূপচর্চায় সাধারণ ফ্লুরাইড টুথপেস্টই বেশি কাজে দেয়। চলুন এখন জেনে নিই ত্বকের যত্নে টুথপেস্টের কিছু কার্যকরি ব্যবহার যা আপনার অনেক উপকারে আসবে।

হোয়াইট হেডসঃ ধুলোময়লা, দূষণ, অতিরিক্ত মেকআপ ইত্যাদির কারণে আপনার ত্বকের ভীষণ ক্ষতি করে। ফলে দেখা দেয় ব্ল্যাক হেডস। ব্ল্যাক হেডসের পূর্ববর্তী অবস্থা হলো হোয়াইট হেডস যাতে আপনার ত্বকের লোমকূপের ছিদ্র বন্ধ হয়ে যায়। যেসব জায়গায় এই হোয়াইট হেডস রয়েছে যেমন, নাক, কপাল, চিবুক সেসব জায়গায় পুরু করে টুথপেস্টের প্রলেপ লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে হাল্কা করে খুঁটে খুঁটে তুলে ফেলুন, প্রথমেই জল লাগাবেন না। টুথপেস্ট উঠে গেলে ভালো করে মুখ ধুয়ে ফেলুন। কিছুদিন পর ফলাফল দেখে আপনি নিজেই চমকে যাবেন।

ব্রণঃ ব্রণ থেকে মুক্তি পেতে টুথপেস্ট খুব ভালো কাজ দেয়। বিশেষ করে ব্যথাযুক্ত ব্রণ। রাতে ঘুমানোর আগে ব্রণর উপর টুথপেস্টের প্রলেপ লাগিয়ে ঘুমাতে যান। সকালে উঠে দেখবেন ফোলা একদম কমে গেছে, আর ব্যথাও অনেকটা কম।

অনুজ্জ্বল ত্বকঃ চটজলদি ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে টুথপেস্টের জুড়ি মেলা ভার। বাইরে যাবার আগে যদি ত্বকের যত্ন নেবার জন্য সময় না থাকে তাহলে ব্যবহার করুন আপনার টুথপেস্ট। সাধারণ ফেসওয়াসের মতো ব্যবহার করুন তারপর মুখ ধুয়ে ফেলুন।

ক্লান্তির ছাপ দূর করতেঃ অতিরিক্ত মেকআপ, দূষণ ও দৌড়াদৌড়ির ফলে শরীরের মতোই ত্বকও ক্লান্ত হয়ে পড়ে। আর তার ছাপ পড়ে চেহারায়। দুই চা চামচ চায়ের লিকার নিয়ে তাতে সামান্য পরিমান টুথপেস্ট ভালো করে মিশিয়ে পুরো মুখে লাগান। দশ মিনিট রেখে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ত্বকের ক্লান্তি নিমেষেই দূর করতে এই পদ্ধতিটি বেশ কার্যকরি।