Home / ত্বকের যত্ন / একমাস টমেটো ফেসিয়াল করুন আর পান দাগহীন উজ্জ্বল ত্বক

একমাস টমেটো ফেসিয়াল করুন আর পান দাগহীন উজ্জ্বল ত্বক

টমেটো খেলে স্কিন নাকি গ্লো করে অনেকেই বলে থাকে। তা সঠিকই বলেন তারা। কিন্তু বিশেষজ্ঞদের মতে এটি খাওয়ার তুলনায় স্কিনে অ্যাপ্লাই করলে কাজ দেয় বেশি। আজকের লেখাটি লেখার আগে আমি নিজে এটি একমাস ব্যবহার করে দেখেছি। সত্যি অবাক করার মত রেজাল্ট পেয়েছি, আর সেই জন্যই আপনাদের সাথে টমেটোর ফেসিয়াল আজ শেয়ার করছি। টমেটো’র ফেসিয়াল করার আগে কয়েকটি বিষয় সম্পর্কে আগে অবশ্যই জেনে নিন। কারণ প্রাকৃতিক উপাদানও অনেকের অনেক সময় কাজ করে না। তাই কিরকম ধরণের ত্বক হলে এটি ব্যবহার করা সঠিক হবে তা জানা খুবই জরুরি।



আপনার স্কিন কি অয়েলি না ড্রাই ?
যদি আপনার স্কিন খুব অয়েলি হয় তাহলে এই ফেসিয়াল ব্যবহার করবেন না। কেন? কারণ টমেটো ত্বকের অয়েলি ভাব বাড়াতে সাহায্য করে। ফলে যাদের অয়েলি স্কিন তাদের জন্য এটি সঠিক না। বরং ড্রাই স্কিনের মালকিনরা আজকের ফেসিয়াল চোখ বন্ধ করে ব্যবহার করতে পারেন। মুখের ড্রাইনেস একেবারে গায়েব হয়ে যাবে। আর ত্বক হয়ে উঠবে জেল্লাময়।



টমেটো ফেসিয়ালঃ
টমেটো ফেসিয়াল করার জন্য আপনাদের একটি ফেস প্যাক বানিয়ে নিতে হবে। অবশ্য তার আগে কয়েকটি স্টেপ ফলো করতে হবে। আগে সেগুলো জেনে নিন তারপর ফেসিয়াল করার পদ্ধতি বলছি।



ক্লিঞ্জিং করুন সবার প্রথমেঃ
মুখ বাইরে থেকে পরিষ্কার দেখালেও ভেতরে ময়লা জমে থাকেই। যা আমরা দেখতে পাই না। তাই ফেসিয়াল করার আগে প্রথমে ভেতর থেকে মুখ পরিষ্কার করে নিতে হবে তবেই ফেসিয়াল কাজে দেবে। ভালো করে ঠাণ্ডা জল দিয়ে প্রথমে মুখ ধুয়ে নিন। তারপর একটা টমেটো কেটে নিয়ে তা দিয়ে মুখ পরিষ্কার করুন। টমেটো’র রস মুখের ভেতরকার ময়লা বের করতে সাহায্য করবে। পাশাপাশি ত্বকের রুক্ষভাব দূর করবে অনায়াসে। ১৫ মিনিট এটি করার পর ঠাণ্ডা জলে মুখ ধুয়ে পরিষ্কার কাপড় দিয়ে মুখ মুছে ৫ মিনিট অপেক্ষা করুন নেক্স স্টেপের জন্য।



স্ক্রাবিং করুন ফেসিয়াল করার আগে
ফেসিয়াল করার দ্বিতীয় ধাপে আপনাকে স্ক্রাবিং করতে হবে। খুবই সহজ এটি করা। একফালি টমেটোর উপর হাফ চামচ চিনি মিশিয়ে তা মুখে ১০ মিনিট ম্যাসাজ করুন। ম্যাসাজ করা হয়ে গেলে মুখ ধুয়ে নিন।



মোলায়েম ত্বকের জন্য ম্যাসাজ
ম্যাসাজ স্কিনে রক্ত চলাচল ঠিক রাখতে খুবই জরুরি। তাই তৃতীয় স্টেপে বেশি কিছু না শুধু মুখে ম্যাসাজ করতে হবে। ভাবছেন কি ভাবে করবেন? বলছি। হাতের দুই তালুতে অল্প উষ্ণ গরম করা নারকেল তেল লাগিয়ে নিয়ে তা মুখে আলতো ভাবে ম্যাসাজ করুন। প্রথম ৫ মিনিট ক্লক অনুযায়ী আর নেক্সট ৫ মিনিট এণ্টি ক্লক অনুযায়ী এটি করতে হবে। ১০ মিনিট করার পর মুখ ধুয়ে নিন হালকা গরমজল দিয়ে।



টমেটো’র ফেস প্যাক ও ফেসিয়ালঃ
এবার লাস্ট স্টেপ অর্থাৎ ফেসিয়াল করার পালা। বেশি কিছু প্রয়োজন নেই এই ফেস প্যাকটি বানানোর জন্য। মাত্র চারটি ঘরোয়া জিনিস দিয়েই আপনারা এটি করতে পারবেন। যা যা লাগবেঃ ১. টমেটো পেস্ট হাফ বাটি ২. দই ৩ চা চামচ ৩. মধু ২ চা চামচ ৪. গোলাপজল ২ চা চামচ



কি ভাবে বানাবেন?
একটি কাঁচের পাত্র নিয়ে তাতে টমেটোর পেস্ট, পরিমান মত দই, মধু ও গোলাপজল মিশিয়ে নিন। ব্যবহার করার আগে এটি ৫ মিনিট রেখে দিন ফ্রিজে। এবার তুলো বা ব্রাশ দিয়ে মুখে ও গলায় ভালো করে অ্যাপ্লাই করুন প্যাকটি। খেয়াল রাখবেন চোখের ভিতরে না যায়। প্যাক সারা মুখে ভালোভাবে লাগানোর পর হালকা হাতে ম্যাসাজ করুন ১০ মিনিট মত। এই ম্যাসাজ করার ফলে প্যাকটি ভালো ভাবে স্কিনে অ্যাপ্লাই হয় ও কাজ করে দারুন। এবার ৩০ থেকে ৪০ মিনিট মত অপেক্ষা করুন প্যাকটি শুকিয়ে যাওয়া অব্দি। একটি পাত্রে হালকা গরমজল নিন এবার। এতে তুলো ভিজিয়ে তা দিয়ে মুখে লাগানো প্যাকটি আসতে আসতে তুলুন।



সম্পূর্ণ ভাবে প্যাক তোলা হয়ে গেলে ঠাণ্ডা জলে মুখ ধুয়ে নিন ও যেকোনো ফেস ক্রিম ভালো ভাবে লাগিয়ে নিন। প্যাক লাগানোর আগে বা পরে রোদে যাবেন না এমনকি প্যাক লাগিয়েও রোদে বেরবেন না। তাই সবচেয়ে ভালো বিকেলে বা রাতে এটি অ্যাপ্লাই করুন। সপ্তাহে দুবার করে করুন। আর কোন অকেসান থাকলে তাতে যাওয়ার আগের দিন এটি ব্যবহার করুন মুখের জেল্লা দেখা দেবে।



সতর্ক থাকবেন যে যে বিষয়েঃ
অনেকের টমেটো’তে অ্যালার্জি থাকে। ফলে তারা এই ফেসিয়াল ব্যবহার করবেন না। ফেস প্যাক বানিয়ে তা ফ্রিজে রেখে ব্যবহার করবেন না দুদিন। যেদিন বানাবেন সেদিনই ব্যবহার করবেন। আর মুখে র‍্যাশ বা কোন অ্যালার্জি থাকলে এটি ইউজ করবেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *