Home / এক্সক্লুসিভ / ইঁদুর কুচিকুচি করল এটিএম বুথে রাখা সাড়ে ১২ লাখ টাকা

ইঁদুর কুচিকুচি করল এটিএম বুথে রাখা সাড়ে ১২ লাখ টাকা

স্বয়ংক্রিয়ভাবে অর্থ ওঠানোর যন্ত্রে (এটিএম) রাখা প্রায় সাড়ে ১২ লাখ রুপি কেটে ফেলেছে ইঁদুরের দল। ভারতের আসাম রাজ্যের তিনসুকিয়া জেলায় স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার একটি এটিএম বুথে এ ঘটনা ঘটেছে।

দেশটির সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, তিনসুকিয়ার লাইপুলি এলাকায় একটি এটিএম বুথ কয়েকদিন ধরেই নষ্ট ছিল। গত ১১ জুন স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার কারিগরি দল বুথটি ঠিক করতে আসে।

এসে দেখে বুথে থাকা ৫০০ ও ২০০০ টাকার নোট কেটে তছনছ করেছে ইঁদুরের দল। এতে ওই এটিএমটিতে রাখা ১২ লাখ ৩৮ হাজার রুপি নষ্ট হয়ে গেছে। তবে ওই এটিএমে রাখা সব অর্থ নষ্ট করেনি ইঁদুর। ১৭ লাখ ১০ হাজার টাকা রক্ষা পেয়েছে ইঁদুরের আক্রমণ থেকে।

এদিকে ঘটনার পরে গত সোমবার স্থানীয় সাংবাদিক নন্দন প্রতিম শর্মা একটি ভিডিও পোস্ট করেন। তাতে দেখা যায়, এটিএম বুথে থাকা অর্থের অনেকগুলোই কেটে ফেলেছে ইঁদুর। আর সেই কেটে ফেলা অর্থ নিয়েই আলোচনায় মেতেছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম।

নিজেদের বাসস্থান ছেড়ে সাপকে আমরা অনেক সময় দেখেছি লোকালয়ের মধ্যে ঢুকে পড়তে। সাপ বারংবার উদ্ধার হয়েছে গৃহস্থের বাড়ি থেকে, ঝোপঝাড় থেকে, সে ছবি নতুন নয়। তবে এবার একটি আস্ত সাপ

ঢুকে পড়লো প্রথমে এটিএম কাউন্টারে এবং পরে এটিএম মেশিনের ভিতর। যা দেখে হতবাক এলাকার বাসিন্দারা। আর সেই মূহূর্তের ক্যামেরাবন্দি করা ভিডিও মুহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

ঘটনাটি ঘটেছে গাজিয়াবাদে। একটি আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কের এটিএম কাউন্টারের এমন ঘটনা ঘটেছে। এটিএমে সাপটি ঢুকে পড়ার পর বাইরে থেকে দরজা বন্ধ করে দেন এক নিরাপত্তা কর্মী। সাপ ঢুকে পড়ার খবরে এটিএমের বাইরে ভিড় জমে যায়।

এটিএম কাউন্টারের মধ্যে থাকা এটিএম মেশিনের ডিসপ্লের কাছে থাকা ছোট্ট ফুটো দিয়ে মাথা গুলিয়ে আস্ত এই সাপটি ঢুকে পড়ে মেশিনের মধ্যে। আর এমন ঘটনা দেখতে ঘটনাস্থলে জড়ো হন এলাকার বেশকিছু বাসিন্দারা। তারাই সেই মুহূর্তের ভিডিও ক্যামেরাবন্দি করেন।

ঘটনাস্থল গাজিয়াবাদের গোবিন্দপুরের প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সাপটি কম করে ৫ থেকে ৬ ফুট লম্বা ছিল। কোনো কারণবশত সে ওই এটিএম কাউন্টারের ভিতরে ঢুকে যায়। তারপর এদিক ওদিক দিয়ে বের হওয়ার চেষ্টা করে। ভয়ে কেউ কাছে যায়নি। কিন্তু বের হতে না পেরে ঢুকে পড়ে এটিএম মেশিনের ভিতর।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে সাপটি এটিএম বুথ বেয়ে উপরে উঠে দিকে ওঠে। এর পরই বুথটির ফাঁকা অংশে আশ্রয় নেয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও হোয়াটসঅ্যাপের মতো মেসেজিং প্ল্যাটফর্মে ছড়িয়ে পড়েছে ভিডিওটি।

যদিও সাপটি এটিএম কাউন্টারের ঢুকে থাকা অবস্থা ও এটিএম মেশিনের ভিতরে ঢুকে পড়া অবস্থায় ঘটনা ক্যামেরাবন্দি হয়। সেই ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ভাইরাল হওয়া ভিডিয়োটি একাধিক অ্যাকাউন্টে

শেয়ার হয়েছে। সেখানে এক একটিতেই কয়েক হাজার করে ভিউ পেয়েছে ভিডিয়োটি। পরে সাপটিকে বন বিভাগের কর্মীরা এসে উদ্ধার করেন। জেলার বন আধিকারিক দীক্ষা ভান্ডারি জানিয়েছেন, সাপটি বিষধর নয়।