Home / দাম্পত্য জীবন / সহবাসে স্বামী বা স্ত্রীকে সর্বচ্চো সুখ দিতে চান? জেনে নিন কিছু গুরুত্বপূর্ন কৌশল

সহবাসে স্বামী বা স্ত্রীকে সর্বচ্চো সুখ দিতে চান? জেনে নিন কিছু গুরুত্বপূর্ন কৌশল

পুরুষদের শারীরিক এক ধরনের সমস্যা আজকাল অধিকাংশ পুরুষ দীর্ঘক্ষণ শারীরিক মিলন করা তো দুরের কথা যেটুকু সময় তার স্ত্রীকে আনন্দ দিতে প্রয়োজন সে সময়টুকুও তারা মিলনে স্থায়ী করতে পারেন না। যদিও এর পেছনে রয়েছে বহুবিধ কারণ। তবে শারীরিক মিলন নিয়ে যারা মানসিক ভাবে দুর্বলতায় ভুগেন তারা নিম্নলিখিত টিপসগুলো অনুসরন করে লাভবান হতে পারেন যদি অন্য কোন শারীরিক সমস্যায় আক্রান্ত না হয়ে থাকেন।



শারীরিক মিলন শুরু করার আগে মন শান্ত করতে হবে৷ মনে কোন প্রকার নেগেটিভ ভাবনা আনা যাবে না৷ একটি বিষয় অনেকের ক্ষেত্রেই ঘটে স্বল্পস্থায়ী দাম্প্যতর একমাত্র কারণ হল তাদের শারীরিক ও মানসিক অস্থিরতা৷ নিজেকে শারীরিক মিলেনর জন্য শারীরিক এবং মানসিক ভাবে তৈরি করুন৷ সকল প্রকার মানসিক চাপ, উদ্বেগ কমিয়ে আনুন৷ স্ত্রী ছাড়া অন্য কারো সাথে শারীরিক মিলন থেকে বিরত থাকুন৷ স্ত্রী সাথে আপনার মনের ভাবনা গুলি শেয়ার করুন৷



তামাক, মদ ও অন্যান্য ওষুধের অতিরিক্ত সেবন দীর্ঘস্থায়ী দাম্পত্যর ক্ষেত্রে বাধা সৃষ্টি করে৷ এইগুলি পরিহার করে চলা উচিত।

সহবাস বা শারীরিক মিলনের সময় করণীয় :-
শারীরিক মিলনের আগে কোন মতেই ফোর প্লে বাদ দেবেন না৷দরকার হলে অধিক সময় নিয়ে ফোর প্লে করুন। আসন পরিবর্তন করুন৷ নতুন কিছু আপনার মনোযোগকে আরও রোমাঞ্চিত করে তুলতে পারে৷ সঙ্গীর চাহিদার দিকেও নজর দিন৷



ধীরে ধীরে শ্বাসপ্রশ্বাস নিলে পরিশ্রম কম অনুভব হবে ফলে শরীর দীর্ঘক্ষণ শারীরিক মিলনের জন্য উপযুক্ত থাকবে৷
শরীরের বিভিন্ন পুষ্টি পূরণে আমরা প্রতিদিনই অনেক ধরনের খাবার খেয়ে থাকি কিন্তু সবাই জানি কি কোন ধরনের খাবার আমাদের শারীরিক মিলন বাড়াতে সক্ষম? সাধারণত খাবারে ভিটামিন এবং মিনারেলের ভারসাম্য ঠিক থাকলে শরীরে এন্ড্রোক্রাইন সিস্টেম সক্রিয় থাকে।



আর তা আপনার শরীরে এস্ট্রোজেন এবং টেস্টোস্টেরনের তৈরি হওয়া নিয়ন্ত্রণ করে। এস্ট্রোজেন এবং টেস্টোস্টেরন সহবাসের ইচ্ছা এবং পারফরমেন্সের জন্য জরুরি। আপনি শারীরিক মিলনের মুডে আছেন কিনা তা অনেকটাই নিয়ন্ত্রণ করে আপনার খাদ্য। আসুন জেনে নিই এমন কয়েকটি দৈনন্দিন খাদ্য সম্পর্কে যা আপনার শরীরে শারীরিক পাওয়ার বাড়ায় বহুগুণ।



জেনে নিন:
দুধ : বেশি পরিমাণ প্রাণিজ-ফ্যাট আছে এ ধরনের প্রাকৃতিক খাদ্য আপনার শারীরিক জীবনের উন্নতি ঘটায়। যেমন, খাঁটি দুধ, দুধের সর, মাখন ইত্যাদি। বেশিরভাগ মানুষই ফ্যাট জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলতে চায়।



কিন্তু আপনি যদি শরীরে সেক্স হরমোন তৈরি হওয়ার পরিমাণ বাড়াতে চান তাহলে প্রচুর পরিমাণে ফ্যাট জাতীয় খাবারের দরকার। তবে সগুলিকে হতে হবে প্রাকৃতিক এবং স্যাচুরেটেড ফ্যাট।

ঝিনুক : আপনার যৌনজীবন আনন্দময় করে তুলতে ঝিনুক খাদ্য হিসেবে খুবই কার্যকরী। ঝিনুকে খুব বেশি পরিমাণে জিঙ্ক থাকে। জিঙ্ক শুক্রাণুর সংখ্যা বৃদ্ধি করে এবং লিবিডো বা যৌন-ইচ্ছা বাড়ায়। ঝিনুক কাঁচা বা রান্না করে যে অবস্থাতেই খাওয়া হোক, ঝিনুক যৌনজীবনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।



সহবাসের ২০ মিনিট আগে যে দুটি খাবার খেলে থাকতে পারবেন ঘন্টার পর ঘন্টা,শুনুন ডাক্তারের কাছ থেকেই।সহবাসের ২০ মিনিট আগে যে দুটি খাবার খেলে থাকতে পারবেন ঘন্টার পর ঘন্টা,শুনুন ডাক্তারের কাছ থেকেই।সহবাসের ২০ মিনিট আগে যে দুটি খাবার খেলে থাকতে পারবেন ঘন্টার পর ঘন্টা,শুনুন ডাক্তারের কাছ থেকেই।



শরীরের বিভিন্ন পুষ্টি পূরণে আমরা প্রতিদিনই অনেক ধরনের খাবার খেয়ে থাকি কিন্তু সবাই জানি কি কোন ধরনের খাবার আমাদের সেক্স বাড়াতে সক্ষম? সাধারণত খাবারে ভিটামিন এবং মিনারেলের ভারসাম্য ঠিক থাকলে শরীরে এন্ড্রোক্রাইন সিস্টেম সক্রিয় থাকে। আর তা আপনার শরীরে এস্ট্রোজেন এবং টেস্টোস্টেরনের তৈরি হওয়া নিয়ন্ত্রণ করে। এস্ট্রোজেন এবং টেস্টোস্টেরন সেক্সের ইচ্ছা এবং পারফরমেন্সের জন্য জরুরি।

আপনি শারীরিক মিলনের মুডে আছেন কিনা তা অনেকটাই নিয়ন্ত্রণ করে আপনার খাদ্য। আসুন জেনে নিই এমন কয়েকটি দৈনন্দিন খাদ্য সম্পর্কে যা আপনার শরীরে সহবাস পাওয়ার বাড়ায় বহুগুণ।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *