[X]
Home / মনের জানালা / মেয়েদের যে বিশেষ গুণগুলো পুরুষদের কাছে অত্যন্ত আকর্ষণীয়!

মেয়েদের যে বিশেষ গুণগুলো পুরুষদের কাছে অত্যন্ত আকর্ষণীয়!

অনেক মেয়েই অনেক সময় ভেবে থাকবেন, ছেলেরা মেয়েদের মধ্যে কী পছন্দ করে আসলে? কী এমন আকর্ষণের টানে ছেলেরা পছন্দের মেয়েটির কাছে চলে যান। সৃষ্টির শুরু থেকেই এই বিপরীত লিঙ্গের মানুষজন একে অপরকে আকর্ষণ করেন। নারী-পুরুষ উভয়ের মাঝেই কিছু কিছু গুণ রয়েছে যা এই আকর্ষণটাকে অনেক মজবুত করে তোলে।



পুরুষদের মধ্যে যারা সাধারণ এবং সরল চিন্তা করে থাকেন তারা সাধারণত কিছু বিশেষ গুণ খুঁজে থাকেন নারীদের মাঝে। সকলে বলবেন পুরুষেরা কেবল চেহারা দেখে। কিন্তু সত্যি বলতে কি, চেহারার চাইতে ব্যক্তিত্ব, সাদাসিধে চলনবলন এমন অনেক কিছু আছে যেগুলো বেশি আকর্ষণীয়। অন্য কিছু নয়, বরং এই গুণগুলোই হয়ে উঠে আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু। চলুন তবে দেখে নেয়া যাক মেয়েদের সেই কটি বিশেষ যা গুণ ছেলেদের কাছে অত্যন্ত আকর্ষণীয় মনে হয়।



ব্যক্তিত্ব: সাধারণভাবে চিন্তা করতে গেলে মনে হবে ছেলেরা শুধুমাত্র সুন্দর চেহারার পিছনেই ছুটে থাকেন। আসলে কিন্তু তা নয়। ছেলেদের কাছে মেয়েদের ব্যক্তিত্ব অনেক বেশি আকর্ষণ করে। অনেক ছেলেই রয়েছেন যারা মেয়েদের ব্যক্তিত্বের আকর্ষণেই প্রেমে পড়ে থাকেন। চার্মিং, ফান এবং উচ্ছল ব্যক্তিত্বের মেয়েদের আকর্ষণে পড়েন বেশীরভাগ ছেলেই।



মেকআপ বিহীন চেহারা: প্রিয় মানুষটিকে খুশি করতে মেয়েরা যতোই মেকআপ করুন বা কেন তাদের কাছে পছন্দ মেকআপ বিহীন সাধারণ চেহারাই। আজ পর্যন্ত অনেক জরীপে প্রায় ৯০% ছেলেরা এই কথায় একমত প্রকাশ করেন। মেকআপ বিহীন, সাদামাদা, ছিমছাম মেয়েদেরকেই অনেক ছেলে আকর্ষণীয়া হিসেবে খুঁজে পান।



নাটুকেপনা বিহীন কাজ: মেয়েদের মধ্যে নাটুকেপনা অনেক বেশীই দেখা যায়। আমি এখানে যাবো না, ওইটা করবো না, এভাবে চলবো প্লিজ এই ধরণের নাটুকেপনার মেয়েদের থেকে ছেলেরা দূরে থাকতেই বেশি পছন্দ করেন। যদি কেউ এই ধরণের মেয়েদের সাথে সম্পর্কে জড়িয়েও পড়েন তবে তা বেশিদিন টিকে থাকতে পারে না। কারণ একটাই, এই নাটুকে ভাব কয়েকদিনের জন্য ঠিক আছে কিন্তু সব সময়ের জন্য নয়।



উপযুক্ত সময় এবং স্থানে সঠিক কথা বলতে পারা: অনেক ছেলেরাই বলেন মেয়েরা এমনিতে বেশি কথা বললেও সঠিক সময়ে ঠিক কথাটি বলতে পারেন না। তখন হয় উল্টোপাল্টা কথা বলেন অথবা একেবারে চুপ থাকেন। তাই ছেলেদের মধ্যে সঠিক সময়ে সঠিক কথা বলার মেয়েদের প্রতি এক ধরনের আকর্ষণ অনুভব করেন। তাদের কাছে এই ধরণের মেয়েদের আকর্ষণীয়া মনে হয়।



আত্মনির্ভরশীলতা: ছেলেরা আত্মনির্ভরশীল মেয়েদের অনেক বেশি পছন্দ করেন। তারা নিজের মায়ের মতো একজনকে খুঁজে পান আত্মনির্ভরশীল মেয়েদের মধ্যে। নিজের কাজ নিজে করতে পারা মেয়েদের আকর্ষণীয় বলে থাকেন অনেক ছেলেই। কারণ, মেয়েটি নিজের কাজ করে তারও যত্ন নেবেন এই জিনিসটি বেশীরভাগ ছেলেই আশা করেন।



রহস্যময়তা: মেয়েদের যতোই রহস্যময়ী বলে আক্ষেপ করে থাকেন বেশীরভাগ ছেলেই কিন্তু তাদের পছন্দ কিন্তু এই রহস্যই। রহস্য থাকলে তার প্রতি অনেক বেশি আকর্ষণ অনুভব করেন ছেলেরা। মনে করেন তাকে এই রহস্য উদ্ধার করতেই হবে। এই ভেবেই সেই রহস্যের সমাধানে নেমে পড়েন অনেকে। তাদের কাছে রহস্যময়ী মেয়েরাই আকর্ষণীয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *