Home / ফিটনেস / ৩ মাসে ১৬ কেজি ওজন কমালেন কারিনা কাপুর!

৩ মাসে ১৬ কেজি ওজন কমালেন কারিনা কাপুর!

গতবছরের ডিসেম্বরে মা হয়েছেন কারিনা কাপুর খান। মাতৃত্বের দরুণ তার শরীর মুটিয়ে গেলেও কাজ থেকে কখনো বিরতি নেননি। সন্তান জন্মের কারণে ১৮ কেজি ওজন বেড়ে গিয়েছিল নায়িকার। তবে ক’দিন আগে জি সিনে অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে তাকে দেখা গেল ছিপছিপে শরীরে। কি সেই রহস্য!

বলিউডয়ে নায়িকাদের সাইজ জিরো ফিগার জনপ্রিয় করিয়েছিলেন সাইফপত্নী কারিনা কাপুর খান। কিন্তু সন্তান হওয়ার পর অনেকদিন আরালে ছিলেন কারিনা কাপুর। যার অন্যতম কারণ ছিল সন্তান ও তার বাড়তি ওজন। তবে নিজেকে আবারো আগের কারিনায় ফিরিয়ে নিতে নিয়মিত জিম করছেন তিনি। এরই মধ্যে ১৬ কেজি ওজন কমিয়েছেন।কিন্তু অভিনয় দক্ষতার প্রমাণ দিয়েছেন খ্যাত বলিউড অভিনেত্রী কারিনা। ভালো অভিনয়ের পাশাপাশি তার পারফর্মেন্স এবং আবেদনও নজর কাড়ে সবার। সব মিলিয়ে অল্প সময়ের মধ্যে একটি ভালো অবস্থানও তৈরি করেন এই অভিনেত্রী।

কারিনা-সাইফের ঘর আলো করে রয়েছে তাদের ছেলে তৈমুর। সন্তান প্রসবের পরে আবার নায়িকা-সুলভ চেহারায় ফিরতে চেয়েছেন তিনি। আর তাই ওজন কমানোর জন্য তিনি নিয়েছেন এক অভিনব কৌশল। তবে ওজন নিয়ে আরও একটু সচেতন হওয়ার জন্য বলিউডের অনেকেই পরামর্শ দিয়েছেন কারিনাকে।

কারিনাদের পরিবারের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিশেষ সূত্র সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে, সন্তান প্রসবের প্রায় ৪০ দিন পর থেকে ওজন কমানোর চেষ্টা শুরু করেন কারিনা। হালকা এক্সারসাইজের পাশাপাশি যোগ ব্যয়ামও শুরু করেন। কিন্তু গত দু’ সপ্তাহে তিনি রীতিমতো ওয়ার্কআউট এবং পেটের মেদ কমানোর জন্য বিশেষ ব্যয়াম শুরু করেন। সেই সঙ্গে ডায়েটিসিয়ানের পরামর্শ নিয়েও চলেছেন।কারিনার ডায়েটিসিয়ান জানিয়েছেন, কারিনা তাকে বলেছেন, তিনি রাতারাতি রোগা হতে চান না। কারণ ওজন কমানো তার লক্ষ্য নয়। তিনি চান সুস্থ থাকতে, খুশি থাকতে, এবং এনার্জেটিক হয়ে উঠতে। সন্তান জন্মের পরে যে ভাবে ধীরে ধীরে ওজন কমানোর পরিকল্পনা করেছেন কারিনা, তা বেশ অভিনব। কারণ অধিকাংশ নায়িকাই নাকি তড়িঘড়ি রোগা হতে চান। অথচ গর্ভধারণের পরে ধীরে ধীরে ওজন কমানোই রোগা হওয়ার স্বাস্থ্যসম্মত পদ্ধতি বলে জানিয়েছেন কারিনার ডায়েটিসিয়ান।

এই সব কৌশলে ১৬ কেজি ওজন কমিয়ে ফেলেছেন কারিনা। কারিনা বলেন, ‘যেহেতু সিনেমায় নিয়মিত হচ্ছি তাই নিজের ফিটটেস ঠিক করা জরুরী। এটিও পেশাদারিত্বের মধ্যে পড়ে। সেই জায়গা থেকে আমি নিজেকে ফিট রাখতে নিয়মিত জিমে যাচ্ছি।’

তবে নিন্দুকেরা সমালোচনা করে বলছেন ফিট থাকার উদ্দেশ্যে নয়, কারিনা আবারো জিরো ফিগারে আসতে জিমে যাচ্ছেন। কারিনা এই প্রসঙ্গে বলেন, ‘জিমে যাওয়া মনেই জিরো ফিগার হওয় নয়। আমি নিজের কাজের ফাঁকে জিম করতে ভালোবাসি। আর ফিটনেসটাই মূল কারণ।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *