Home / ত্বকের যত্ন / ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে এবং ত্বকের যত্নে সহজ হারবাল উপাদান!

ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে এবং ত্বকের যত্নে সহজ হারবাল উপাদান!

আমরা সবাই চাই পরিষ্কার মুখ, ব্রণ মুক্ত এবং মসৃণ ত্বক। ছবিতে কিংবা সম্মুখে সবথেকে সজীব ও উজ্জ্বল ত্বক যেন নিজেরই হয়। সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মি, দূষণ এবং বিভিন্ন রাসায়নিক কেমিক্যাল পণ্য ব্যবহারের ফলে আমাদের ত্বক দিন দিন ড্যামেজ ও নিষ্প্রাণ হয়ে যাচ্ছে। ব্রণ, এইজ রিংকেল, কালো দাগ, ডার্ক সার্কেল, রোদে পোড়া ইত্যাদি ত্বকের স্বাভাবিক সৌন্দর্য নষ্ট করে দিচ্ছে।



এসব থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার জন্য আমরা বিভিন্ন প্রসাধনী ব্যবহারে করি আবার বেশিরভাগ সময় ব্যয়বহুল স্পাও করে থাকি। কিন্তু এসব ক্ষতিকারক কেমিক্যাল উপাদান সমাধান নয় বরং ত্বকের উপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। এবং স্থায়ী ভাবে ত্বক ড্যামেজ করে দেয়। ত্বকের এই সকল সমস্যা দূর করতে ভেষজ ও হারবাল উপাদান অত্যন্ত কার্যকর। সহজলভ্য এবং হাতের কাছেই ঘরে কিংবা রান্নাঘরের কিছু উপাদান দিয়েই আপনি করতে পারেন ত্বকের সমস্যার স্থায়ী সমাধান।



ত্বকের সমস্যা দূর করতে ভেষজ বা হারবাল উপাদান ব্যাপক ভূমিকা রাখে। খুবই সহজ কিছু উপায়ে করতে পারেন ড্যামেজ ত্বকের স্থায়ী সমাধান। আসুন তাহলে জেনে নেয়া যাক কী কী উপায়ে ব্যবহার করবেন এসব উপাদান।

১. ব্রণ দূর করতে হারবাল:
ব্রণের সমস্যা প্রায় কম-বেশি সবারই রয়েছে। এই সমস্যা শুধুমাত্র টিন এজ বয়সের নয়, এটি এখন সব বয়সের মানুষের জন্য সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। ব্রণের সমস্যা দূর করতে চমৎকার একটি প্রাকৃতিক উপাদান হচ্ছে টমেটো। এক্ষেত্রে আপনাকে যা করতে হবে।



একটি টমেটো অর্ধেক করে কেটে, অর্ধেকের সামনের অংশ মুখে ভালো করে ঘষতে হবে এটি আপনার মুখের তৈলাক্ত ভাব নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করবে। ব্রণ সাধারণত তৈলাক্ত ত্বকে বেশি হয়ে থাকে। টমেটোর নির্যাস আপনার ত্বকের ব্রণ এবং পিম্পল জাতীয় যাবতীয় সমস্যা দূর করে ত্বকের তৈলাক্ত ভাব থেকে দূরে রাখবে ফলস্বরূপ, আপনার মুখের পিম্পল, ব্রণ এবং ব্লাকহেডস জাতীয় সমস্যা প্রতিরোধ হবে।



২. বয়স ছাপ দূর করতে হারবাল উপাদান:
একটা নির্দিষ্ট সময়ের পরে সবার ত্বকেই বয়েসের ছাপ পড়তে থাকে। বয়স যতো বাড়বে এর লক্ষণ ততো বাড়লেও একটু বাড়তি যত্ন আর সচেতনতা আপনার তারুন্যকে ধরে রাখতে পারে। তারুন্য ও উজ্জ্বল ত্বকের জন্য ব্যবহার করতে পারেন ডিমের প্যাক।

একটি ডিম ভেঙে ডিমের কুসুম থেকে সাদা অংশ আলাদা করুন। সাদা অংশের সাথে এসেন্সিয়াল অয়েল যেমন- ল্যাভেন্ডার বা অলিভ অয়েল মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে ১৫-২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এটি এন্টি এইজিং হিসেবে কাজ করে আপনার ত্বকের বয়স ও তারুণ্য ধরে রাখতে সাহায্য করবে।



৩. ঠোঁটের যত্নে হারবাল উপাদান:
ঠোঁট মানুষের ত্বকের অন্যতম সংবেদনশীল জায়গা। মুখের দিকে তাকালে সবার আগে নজরটা ঠোঁটের উপরই পরে। তাই ঠোঁটের ত্বক সুস্থ্য ও সুন্দর করতে ব্যবহার করতে পারেন হারবাল উপাদান। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে ঠোঁটে মধু প্রয়োগ করুন। সকালে চিনি দিয়ে স্ক্রাবিং করুন এতে আপনার ঠোঁটের শুষ্ক এবং মরা চামড়া গুলো উঠে যাবে ঠোঁটকে করে তুলবে প্রাণবন্ত। এছাড়াও ঠোঁটের ত্বক সুস্থ ও স্বাভাবিক রাখার জন্য দিনে তিন থেকে চারবার মধু বা ঘি মাসাজ করতে পারেন।



৪. ডার্ক সার্কেল দূর করতে হারবাল উপাদান:
ডার্ক সার্কেল একটি কঠিন সমস্যা হলেও ভেষজ উপাদানেই এর সহজ প্রতিকার করা সম্ভব। এক্ষেত্রে কাঁচা আলু, শসা কেটে চোখের ডার্ক সার্কেল এরিয়াতে লাগাতে পারেন অথবা একটি তুলা গোলাপ জলের মধ্যে ডুবিয়ে কালো দাগের উপর মাসাজ করতে পারেন। ১৫-২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত মুখে ফেইস প্যাক লাগানোর সময় এটি প্রয়োগ করতে পারেন। এছাড়াও রাতে শোবার আগে চোখের পাশে আমন্ড অয়েল মাসাজ করলেও ডার্ক সার্কেলে ভালো প্রতিকার পাবেন।



৫. দাগ দূর করতে ভেষজ:
মুখের দাগ বা পিগমেন্টেশন এবং ছোপ ছোপ দাগ ক্ষতিগ্রস্থ ত্বকের লক্ষণ। প্রাকৃতিক ও ভেষজ উপাদানেই দূর করতে পারেন এসব লক্ষণ। একটি বাটিতে কাঁচা আলুর রস এবং কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে মুখের ত্বকের উপর আলতো ভাবে মাসাজ করুন। ১০ মিনিট পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি ত্বকের যেকোনো দাগ দূর করতে সাহায্য করে।



৬. রোদে পোড়া দাগ দূর করতে ভেষজ:
আমরা দৈনন্দিন কাজের জন্য দিনের অর্ধেক সময়ই বাইরে রোদে কাটাতে হয়। সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি ত্বকের প্রচুর ক্ষতি করে ত্বক পুড়ে কালো করে দেয়। রোদে পোড়া দাগ দূর করতে ১ টেবিল চামচ দই, এক চিমটি হলুদ গুঁড়া, এবং কয়েক ফোটা লেবুর রস মিক্সড করুন। ১০-১৫ মিনিটের জন্য রেখে ধুয়ে ফেলুন৷ এই প্যাকটি স্বাভাবিকভাবেই ত্বকের রোদে পোড়া দাগ দূর করে আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *