Home / ফিটনেস / যে ৭টি উপায়ে মেদ মুক্ত পেট পাওয়া সম্ভব!

যে ৭টি উপায়ে মেদ মুক্ত পেট পাওয়া সম্ভব!

পেটে মেদ বা চর্বি হলে চলা ফেরায় যেমন কষ্ট হয়, তেমনি নষ্ট হয় দেহের সৌন্দর্যও। অনেকে আছেন খুব বেশি মোটা না কিন্তু পেটে অনেক মেদ কিংবা দেহের কিছু কিছু স্থানে মেদ জমায় খুবই অস্বস্তি বোধ করেন। কোনো ভালো পোশাক পড়লেও ভালো লাগে না। মেদহীন পেট কার না কাম্য। যদি বলি আপনার পেটের বিচ্ছিরি চর্বিগুলো কমানোর জন্য ব্যায়াম করতে হবে না? অন্যদের মতো আপনারও নিশ্চয় চাই মেদহীন পেট। অথচ আপনার চাওয়াকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে পেটে চর্বি জমছে। এ থেকে কিন্তু সহজেই আপনি মুক্তি পেতে পারেন। একটু সতর্ক হলেই চর্বির যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

১. দিন শুরু হোক লেবুর শরবতে: পেটের চর্বি দূর করার জন্য এটি দারুণ এক উপায়। এক গ্লাস হালকা গরম পানিতে লেবু এবং কিছু লবণ নিতে হবে। নিয়মিত এ শরবত পান করলে পেটের চর্বি থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে। ২. সাদা চালের ভাত থেকে দূরে থাকুন: পেটের চর্বি দূরে রাখতে হলে সাদা চালের ভাত থেকে দূরে থাকুন। এর পরিবর্তে লাল চাল, লাল আটা বা ওটসের তৈরি খাবার খেতে হবে।

৩. দূরে থাকতে হবে চিনি থেকে: পেটের চর্বি থেকে রেহাই পেতে হলে চিনি ও চিনিজাতীয় খাবারের সঙ্গে শত্রুতা ছাড়া উপায় নেই। চিনিজাতীয় খাবার শরীরের বিভিন্ন অংশে চর্বি জমাতে কার্যকরী ভূমিকা রাখে, বিশেষ করে পেট ও উরুতে। ৪. প্রচুর পানি পান: প্রচুর পানি পানের বিকল্প নেই। পেটের চর্বি থেকে মুক্তি পেতে হলে পানির সঙ্গে করতে হবে বন্ধুত্ব। কেননা পানি আপনার শরীরের পরিপাক ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয় এবং শরীর থেকে ক্ষতিকর জিনিস বের করে দিতে সাহায্য করে।

৫. কাঁচা রসুন খাওয়া: সকালে করতে হবে এই কাজ। দুই বা তিন কোয়া কাঁচা রসুন খেতে হবে। লেবুর শরবত পান করার পরই এটি খেয়ে নিলে ভালো ফল পাওয়া যাবে। এই পদ্ধতি আপনার শরীরের ওজন কমানোর প্রক্রিয়াটি দ্বিগুণ গতিতে করবে। সেই সঙ্গে আপনার শরীরের রক্ত সঞ্চালন হবে মসৃণ গতিতে।

৬. মসলাসমৃদ্ধ রান্না: আপনার খাবারকে মসলাসমৃদ্ধ করে তুলুন। দারুচিনি, আদা, কাঁচা মরিচ দিয়ে রান্না করুন আপনার খাবার। কেননা এসব মসলা স্বাস্থ্যকর সব উপাদানে ভরপুর। এগুলো আপনার শরীরের রক্তে শর্করার মাত্রা কমিয়ে রাখতে সহায়তা করে। ৭. বেশি করে ফলমূল খাওয়া: সকালের নাশতায় অন্য খাবারের পরিমাণটা কমিয়ে সেখানে স্থান করে দিতে হবে ফলের। প্রতিদিন সকালে এক বাটি ফল খেলে পেটে চর্বি জমার হাত থেকে অনেকটা রেহাই পাওয়া যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *