Home / ত্বকের যত্ন / উজ্জ্বল নরম ত্বক পেতে গুঁড়ো দুধের ১০টি ফেস প্যাক

উজ্জ্বল নরম ত্বক পেতে গুঁড়ো দুধের ১০টি ফেস প্যাক

উজ্জ্বল নরম ত্বক পেতে কে না চায়! কিন্তু সবসময় তো তা হয় না বলুন। পার্টির মরশুমে বা এমনি যে কোনো সময়েই উজ্জ্বলতাহীন ত্বক আমাদের পছন্দ নয় কারোরই। অনেক কিছুই তো ব্যবহার করে দেখলেন। হয়তো কিছুক্ষেত্রে উপকার পেয়েছেন, কিছু ক্ষেত্রে পাননি। কিন্তু আপনার ত্বকের যত্নে যদি আপনি গুঁড়ো দুধ ব্যবহার করেন তাহলে আপনি যে কত্ত উপকার পাবেন তা আপনি জানেন না। শুধু চা-কফি নয়, ত্বকের জন্যও ব্যবহার করুন গুঁড়ো দুধের ১০ টি ফেস প্যাক।

১. চালের গুঁড়ো আর গুঁড়ো দুধ
এটি কিন্তু খুব ভালো প্যাক আপনার ত্বকের জন্য। আপনারা এটি ব্যবহার করেই দেখতে পারেন। উপকরণ: ২ চামচ চাল গুঁড়ো, ৩ চামচ গুঁড়ো দুধ,জল।

পদ্ধতি: একটি পাত্রে চালের গুঁড়ো আর গুঁড়ো দুধ জল দিয়ে মিশিয়ে ঘন্টা খানেক রেখে দিতে হবে। তারপর ভালো ভাবে মিশিয়ে মুখে লাগাতে হবে আর রাখতে হবে ৩০ মিনিট মতো। ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন তারপর।এটা সপ্তাহে একদিন করতে পারেন। এতে চালের গুঁড়ো থাকায় মুখের ভালো স্ক্রাবিংও হয়ে যাবে।

২. গুঁড়ো দুধ আর হলুদ
হলুদ যে ত্বকের জন্য কত ভাল তা আর নতুন করে বলার কিছু নেই। নানাভাবে তো আপনি হলুদ ব্যবহার করেছেন আর উপকার পেয়েছেন। এবার গুঁড়ো দুধের সাথে মেশান হলুদ।দেখবেন এই দুইয়ের মিশ্রণে আপনার ত্বক হেলদি আর গ্লোয়িং হচ্ছে। উপকরণ: ২ চামচ গুঁড়ো দুধ,৩ চামচ কাঁচা হলুদ বাটা, ২ চামচ মধু, জল।

পদ্ধতি: সবকটি উপকরণ মেশান খুব ভালো করে। এবার মিশ্রণটা মুখে,গলায় লাগিয়ে রেখে দিন ২০ মিনিট মতো। তারপর হাল্কা গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।সপ্তাহে দু’বার করুন পারলে। আপনাকে নরম ত্বক পেতে আর চিন্তা করতে হবে না কোনো।

৩. গুঁড়ো দুধ আর কমলার খোসা
শীতকালে ত্বক শুকিয়ে গেলেও শীতকালই কিন্তু এই সমস্যার সমাধান দিয়ে দেয়।বুঝলেন না? কমলালেবুর কথা বলছি। কমলালেবুর খোসায় থাকা ভিটামিন সি ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারী। তাই এই শীতে নরম ত্বক পেতে গুঁড়ো দুধের সাথে মেশান কমলালেবুর খোসা। উপকরণ: ৪ চামচ কমলালেবুর খোসা গুঁড়ো, ২ চামচ গুঁড়ো দুধ,জল।

পদ্ধতি: কমলালেবুর খোসা গুঁড়ো আর দুধ মিশিয়ে নিন জল দিয়ে। তারপর মুখে লাগিয়ে রেখে দিন ২০ মিনিট মতো। তারপর শুকিয়ে আসলে আগে হাল্কা ম্যাসাজ করে নিন,তারপর ধুয়ে ফেলুন। সঙ্গে সঙ্গেই একটা গ্লো পাচ্ছেন দেখবেন।

৪. গুঁড়ো দুধ আর লেবুর রস
পাতিলেবুর রস একটা প্রাকৃতিক ব্লিচ। তাই মুখে লেবুর রস দিলে তা স্কিনের জন্য যে বেশ উপকারী হবে তা তো বলাই বাহুল্য। উপকরণ: ২ চামচ গুঁড়ো দুধ,৩ চামচ লেবুর রস।

পদ্ধতি: জল দিয়ে দুটি উপকরণ মিশিয়ে নিন। তারপর মুখে মেখে রেখে দিন ১৫ মিনিট মতো।শুকিয়ে গেলে ধুয়ে নিন।এটা খুব ভালো আপনার ত্বকের যত্নে। সপ্তাহে দু’বার করতে পারেন।

৫. গুঁড়ো দুধ আর গোলাপ জল
গোলাপ জল নিয়ে নতুন করে আর কি বলার আছে! এটা যে কত ভালো টোনার তা তো আমরা সবাই জানি। তাই ত্বক এই শীতে কোমল রাখতে গুঁড়ো দুধের সাথে গোলাপ জল ব্যবহার করতেই হবে। উপকরণ: গুঁড়ো দুধ ৪ চামচ, গোলাপ জল ৬ চামচ, জল।

পদ্ধতি: গুঁড়ো দুধ প্রথমে জল দিয়ে গুলে নিন। তাতে এবার গোলাপ জল মেশান আর খানিকক্ষণ এমনি রেখে দিন। তারপর তা মুখে লাগিয়ে রাখুন ঘন্টা খানেক মতো। তারপর ঠান্ডা জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এটা আপনি সপ্তাহে একবার করুন আর টানা দু’মাস করুন। আপনার স্কিনের উজ্জ্বলতা দেখে আপনিই আশ্চর্য হয়ে যাবেন।

৬. গুঁড়ো দুধ আর পেঁপের প্যাক
দাশবাসের সৌজন্যে আশা করি আপনারা জেনে গেছেন পেঁপে স্কিনের জন্য কতটা উপকারী। অনেকে পাকা পেঁপে খেয়েও থাকেন। এবার মেখে দেখুন গুঁড়ো দুধের সঙ্গে। উপকরণ: ২ চামচ পেঁপের পেস্ট,৩ চামচ গুঁড়ো দুধ,জল।

পদ্ধতি: দুটি উপকরণ জল দিয়ে মিশিয়ে নিন আর মুখে লাগিয়ে রাখুন ৩০ মিনিট মতো।তারপর হাল্কা গরম জল দিয়ে হাল্কা করে ম্যাসাজ করে তুলে ফেলুন। এটা আপনি সপ্তাহে একদিন করুন।দেখবেন তারপর পার্থক্যটা।

৭. গুঁড়ো দুধ আর টম্যাটো
টম্যাটো কিন্তু স্কিন খুব ভালো ভাবে কোমল করে তুলতে পারে। রান্না ভালো করার পাশাপাশি স্কিনকেও ভালো করুন টম্যাটো দিয়ে। উপকরণ: ৩ চামচ গুঁড়ো দুধ, ২ চামচ টম্যাটো পেস্ট।

পদ্ধতি: টম্যাটো পেস্ট আর গুঁড়ো দুধ ভালো ভাবে মিশিয়ে নিন। তারপর মুখে আর গলায় মেখে নিন। ১৫ মিনিট রাখুন তারপর শুকিয়ে আসলে হাল্কা হাতে ম্যাসাজ করে ধুয়ে ফেলুন। এটা দু’সপ্তাহে একবার করতে পারেন। আপনি দু’মাস পর থেকেই উপকার পেতে শুরু করবেন। এতে আপনার মুখের দাগ-ছোপও কমাতে সাহায্য করে।

৮. গুঁড়ো দুধ আর গাজরের প্যাক
এই শীতে আমরা কিন্তু প্রচুর গাজর পাই। গাজরে থাকা ভিটামিনস আর মিনারেল আমাদের স্কিনকে ভেতর থেকে সুন্দর করে তোলে। তাই গুঁড়ো দুধের সঙ্গে গাজর মিশিয়ে নিন। উপকরণ: ৩ চামচ গুঁড়ো দুধ, ১ চামচ গাজরের পেস্ট।

পদ্ধতি: গুঁড়ো দুধের সঙ্গে গাজরের পেস্ট মিশিয়ে জল দিয়ে আরও ভালো করে মেশান। এবার এই মিশ্রণ মুখে লাগিয়ে রাখুন প্রায় ২০ মিনিট মতো। দেখবেন যখন শুকিয়ে আসবে তখন আস্তে আস্তে গরম জল দিয়ে ধুয়ে নিন। এটা আপনার স্কিনকে সঙ্গে সঙ্গেই একটা উজ্জ্বলতা এনে দেবে। আপনি এটা একদিন অন্তর অন্তর করতেই পারেন।

৯. গুঁড়ো দুধ আর অ্যালোভেরা
আপনি যদি অ্যালোভেরার রস নিয়ে শুধুও লাগাতে থাকেন তাহলেও দেখবেন আপনার স্কিন কত ফ্রেস থাকছে। এবার ভাবুন এর সাথে গুঁড়ো দুধ দিলে ব্যাপারটা আরও কত উপকারী হয়ে উঠবে। উপকরণ: ৪ চামচ গুঁড়ো দুধ,৩ চামচ অ্যালোভেরা রস,জল।

পদ্ধতি: খুব ভালো হয় যদি বাড়িতে অ্যালোভেরা গাছ থাকে। তাহলে ফ্রেস রস পেয়ে যাবেন। না থাকলে যে কোনো ভালো অ্যালোভেরা জেল কিনে আনুন। এবার গুঁড়ো দুধ মেশান এর সাথে জল দিয়ে। মিশ্রণটা সুন্দরভাবে মুখে মেখে নিন আর রেখে দিন ২০ মিনিট মতো। তারপর হাল্কা গরম জল দিয়ে ঘষে নিয়ে তুলে ফেলুন। এটা অন্তত সপ্তাহে তিন বার করুন।

১০. গুঁড়ো দুধ আর শসার রস
শসার রসও খুব ভালো টোনার হিসাবে ব্যবহার করা যায়। আর সঙ্গে নিন টক দই। এটা ত্বককে উজ্জ্বল করার সাথে সাথে কালো দাগ থাকলে তাও হাল্কা করে আনে। উপকরণ: ৩ চামচ গুঁড়ো দুধ,৩ চামচ শসার রস,১ চামচ টক দই,জল।

পদ্ধতি: গুঁড়ো দুধ আর শসার রস নিয়ে তা জল দিয়ে মিশিয়ে নিন।তাতে ফেটানো দই দিয়ে আবার মেশান ভাল করে। এবার এই মিশ্রণটা মুখে,গলায় মেখে নিন। ৩০ মিনিট মতো রাখতে পারলে খুব ভালো হয়। তারপর হাল্কা হাতে ঘষে নিয়ে তুলে ফেলুন। সপ্তাহে আপনার সুবিধা অনুযায়ী যতদিন পারেন করুন টানা একমাস।ফল পাবেনই।

তাহলে এবার শুধু খেয়ে কেন গুণগান করবেন গুঁড়ো দুধের! ত্বকের যত্নেও কাজে লাগান। তারপর কেমন থাকলেন আমাদের জানাতে ভুলবেন না যেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *