Home / ফিটনেস / দশ দিনে পেটের মেদ কমাবে আদা-জিরা ও দারুচিনি পানি!

দশ দিনে পেটের মেদ কমাবে আদা-জিরা ও দারুচিনি পানি!

পেটের বাড়তি মেদ নিয়ে আজকাল অনেকেই চিন্তিত। পেটে মেদ বা চর্বি হলে চলা – ফেরায় যেমন কষ্ট হয়, তেমনি নষ্ট হয় সৌন্দর্যও। অনেকে আছেন খুব বেশি মোটা না কিন্তু পেটে অনেক মেদ কিংবা দেহের কিছু কিছু স্থানে মেদ জমায় খুবই অস্বস্তি বোধ করেন। সুস্বাস্থ্যের জন্য তো বটেই, শারীরিক সৌন্দর্যের জন্যও নারী-পুরুষ উভয়েই ভাবেন ওজন কমাবেন। কিন্তু কর্মব্যস্ততার কারণে অনেক সময়েই পেটের মেদ কমানোর জন্য প্রয়োজনীয় ব্যায়াম বা ডায়েট করা হয়ে ওঠে না।

তবে জানেন, কিছু সহজ কৌশল অবলম্বন করলে বাড়তি ওজন কিংবা পেটের মেদ কমানো কিন্তু অতটা কঠিন নয়। আপনিও পারবেন ওজন কমাতে। জেনে নিন দশ দিনে পেটের মেদ কমানোর সহজ পদ্ধতি।

আদা পানিঃ আদা পানি শরীর পরিশোধিত করতে সাহায্য করে। পানির মধ্যে আদার টুকরো কেটে ১৫ মিনিট ফুটান। এরপর চুলা থেকে নামিয়ে ঠাণ্ডা করুন। এর মধ্যে কিছুটা লেবু দিয়ে পান করুন। আদা পানি শরীরের অতিরিক্ত মেদ ঝরিয়ে নিতে সাহায্য করবে। টানা এক সপ্তাহ খেলে পিঠের মেদসহ পেটের মেদ কমাতে সাহায্য করবে। এছাড়া আপনি চাইলে আদা গুড়া করে নিতে পারেন। হালকা কুসুম পানিতে গুড়া মিশিয়ে সকালে নাস্তা করার আগেও পান করতে পারেন।

শরীরে খারাপ কোলেস্টেরলের পরিমাণ কমাতে আদা-পানি সাহায্য করে। শরীরে খারাপ কোলেস্টেরলের পরিমাণ বেড়ে গেলে হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ে। বিভিন্ন ধরনের ক্যানসার প্রতিরোধেও আদা-পানি কাজ করে। উচ্চ রক্তচাপের সমস্যায় ভুগলে আদা-পানি খেতে পারেন। আদা উচ্চ রক্তচাপ কমায়। আদার মধ্যে রয়েছে শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। আদা-পানি শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থ দূর করে।

জিরা পানিঃ জিরা পানিও পেটের মেদ কমাতে জাদুকরী ভূমিকা রাখে। টানা ১০ দিন জিরা পানি পান করলে নিশ্চিত ওজন কমবে। জিরা গরম পানিতে ফুটিয়ে লাল পানি পান করুন খালি পেটে। চাইলে টক দইয়ের সাথে মিশিয়েও জিরা খেতে পারেন। চাইলে এক চামচ মধুর সাথেও জিরা খেতে পারেন।

দারুচিনি পানিঃ দারুচিনি দেহের কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। টানা দারুচিনি আর মধু মিশ্রিত পানি পান করলে মেদ ঝরবে। প্রতিদিন দুইবার খালি পেটে পান করুন মধু ও দারুচিনির এ মিশ্রণ। দ্রুত পেটের মেদ কমাতে সাহায্য করবে এ পানীয়। টাইমস অব ইন্ডিয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *