Home / ত্বকের যত্ন / মাত্র ৫ মিনিটে বাড়িয়ে নিন ত্বকের উজ্জ্বলতা

মাত্র ৫ মিনিটে বাড়িয়ে নিন ত্বকের উজ্জ্বলতা

ধরুন হঠাত্‍ কোথাও যেতে হবে, নিজের অনুজ্জ্বল ত্বককে ঘষেমেজে ঠিক করার মতো অতটা সময় হাতে নেই। অথচ নিজের ম্যাড়ম্যাড়ে চেহারা নিয়ে যেতেও ইচ্ছে করছে না। এমন সময়ের জন্যই এই টিপস। ঘরে মজুত রাখুন সামান্য কয়েকটি উপাদান, আর যখন-তখন পান মাত্র ৫ মিনিটে উজ্জ্বল ত্বক।

উপকরণ: চন্দন গুঁড়া, মসুর ডাল গুঁড়া, চালের গুঁড়া, মেহেদি গুঁড়া, ফ্লুরাইড টুথপেস্ট।

মেহেদি গুঁড়া উষ্ণ গরম চায়ের লিকারে ভিজিয়ে রাখুন ৪-৫ ঘণ্টা। ভালো করে নেড়ে ঘন পেস্টের মতো তৈরি করুন। এরপর একটি বক্সে তুলে ডিপ ফ্রিজে রেখে দিন, যাতে প্রয়োজন হলেই সাথে সাথে বের করে ব্যবহার করতে পারেন।

ফেসপ্যাক তৈরি:
১ চা চামচ চন্দন গুঁড়া, আধা চা চামচ মসুর ডাল গুঁড়া, আধা চা চামচ চালের গুঁড়া, আধা চা চামচের আরেকটু কম মেহেদি, সামান্য একটু পেস্ট এবং পরিমাণমতো পানি ভালো করে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এই প্যাক পুরো মুখে লাগান। ৫ মিনিট রেখে মুখ আলতো ম্যাসাজ করে করে ধুয়ে ফেলুন। নিজের ত্বকের উজ্জ্বলতা দেখে নিজেই চমকে যাবেন।

এই পরিমাণ শুধু মুখের জন্য। গলা, ঘাড় বা হাতে লাগাতে চাইলে একই অনুপাতে উপাদানের পরিমাণ বাড়িয়ে নিন। এই প্যাক যেকোনো ত্বকের জন্য নিরাপদ বলে প্রমাণিত হয়েছে। এমনকি সেনসেটিভ ত্বকের জন্যেও। তাই নির্দ্বিধায় যে কেউ ব্যবহার করতে পারেন এই ফেসপ্যাক।

  • মসুর ডাল গুঁড়ো করে নিন মিহি করে। তার মধ্যে ডিমের হলুদ অংশটা মেশান। রোদের মধ্যে এই পেস্টটা শুকিয়ে নিন ভালো করে। একদম মচমচে হয়ে গেলে গুঁড়ো করে শিশির মধ্যে ভরে রেখে দিন। প্রতিদিন রাতে শোবার আগে ২ ফোটা লেবুর রসের সঙ্গে ১ চামচ দুধ ও এই গুঁড়ো খানিকটা মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে মুখে লাগান। আধ ঘন্টা রাখার পরে মুখটা ধুয়ে ফেলুন। মুখ ধোয়ার পর কাঁচা দুধ খানিকটা তুলোতে নিয়ে মুখে বুলিয়ে নিন। আরও ২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।
  • আলুর রস ও কাঁচা দুধ মিশিয়ে ফেসপ্যাক তৈরি করুন। সাথে দিন চন্দনের গুঁড়ো। দিনে ২বার এই মিশ্রণ মুখে লাগিয়ে রাখুন ২০ মিনিট করে। দ্রুত রঙ উজ্জল হবে। চন্দন না দিলেও সমস্যা নেই। এগুলো থেকে যে কোন একটি উপায় বেছে নিন। এবং অবলম্বন করুন। নাম্বার ৫ ছাড়া বাকি যে কোন প্যাক ব্যবহার করলে দিনে দুবার কাঁচা দুধ মুখে লাগিয়ে রাখবেন। ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলবেন। এতে জলদি কাজ করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *