Home / ফিটনেস / ডায়েটের ঝামেলা বা কষ্ট ছাড়াই ওজন কমানোর সহজ উপায়!

ডায়েটের ঝামেলা বা কষ্ট ছাড়াই ওজন কমানোর সহজ উপায়!

সকালে ঘুম থেকে উঠার পরপরই অনেকের বিভিন্ন ধরণের খাদ্যাভাস থাকে। কেউ সকালে ঘুম থেকে উঠেই পানি পান করতে পছন্দ করে। কেউ আবার কিছুক্ষণ ব্যায়াম করে নিতে ভালবাসে। আবার কেউ কেউ ব্যস্ততার অজুহাতে শরীরের জন্য সামান্য কিছু করে উঠতে পারে না। যারা ওজন কমানোর চেষ্টায় বারবার ব্যর্থ হয়েছেন, তারা এই উপায় অবলম্বন করতে পারেন।

১. ঘুম থেকে উঠেই হালকা গরম পানির সাথে লেবুর রস মিশিয়ে নিন। এবার, এতে এক চামচ মধু মিশিয়ে পান করে ফেলুন। এই পানীয় আমাদের শরীরের জন্য অনেক উপকারী। এতে আপনার মেদ কমে যাবে, পাশাপাশি সারাদিনের খাদ্যাভাসেও পরিবর্তন আসবে। যাদের ঠাণ্ডাজনিত সমস্যা রয়েছে, মধু তাদের জন্য অনেক বেশি উপকারী। কাশি ও সর্দি দূর করার কজ্য মধু আর সরিষার তেল মিশিয়ে খেলেও অনেক উপকার পাওয়া যায়।

২. মানুষের অন্ত্রে প্রায় ১৮০০ রোগের জীবাণু থাকে। কালোজিরা এমন এক মহৌষধ যা মরণ ব্যতীত সকল রোগ দূর করতে পারে। তাই প্রতিদিন সকালে অন্তত এক চামচ কালোজিরা খাবার অভ্যাস গড়ে তুলুন। এতে করে আপনাদের শরীরের সকল অসুস্থতা দূর হবে।

৩. ত্বকের গঠনের উন্নতি ও ত্বকের প্রভা বৃদ্ধির জন্য কালোজিরা অত্যাবশ্যকীয়। এতে লিনোলেইক ও লিনোলেনিক নামের এসেনশিয়াল ফ্যাটি এসিড থাকে যা পরিবেশের প্রখরতা, স্ট্রেস ইত্যাদি থেকে আপনার ত্বককে রক্ষা করে এবং ত্বককে সুন্দর করে ও ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখে।

মধু ও কালোজিরার পেস্ট বানিয়ে ত্বকে লাগিয়ে আধাঘন্টা বা একঘন্টা রাখে ধুয়ে ফেলুন, এতে ত্বক উজ্জ্বল হবে।
৪. ডায়াবেটিকদের রোগ উপশমে বেশ কাজে লাগে কালিজিরা। এক চিমটি পরিমাণ কালিজিরা এক গ্লাস পানির সঙ্গে প্রতিদিন সকালে খালি পেটে খেয়ে দেখুন, রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকবে। এছাড়া এক কাপ চা-চামচকালোজিরার তেল, এক কাপ রং চা বা গরম ভাতের সাথে মিশিয়ে দৈনিক ২বার করে নিয়মিত সেব্য। যা ডায়বেটিকস নিয়ন্ত্রণে একশত ভাগ ফলপ্রসূ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *