Home / সাজঘর / সুন্দর গোলাপি ঠোঁট পেতে বদলে ফেলুন ৫ অভ্যাস!

সুন্দর গোলাপি ঠোঁট পেতে বদলে ফেলুন ৫ অভ্যাস!

গোলাপি ঠোঁট কে না চায়। পুরুষের চেয়ে নারীরা বেশি ঠোঁট সচেতন। কারণ নারীদের মুখের চোখ, নাকের মতই ঠোঁট সুন্দর রাখা জরুরী। ঠোঁট কালো বা ফ্যাকাসে হলে মোটেই দেখতে ভাল লাগে না। গোলাপী ঠোঁটই স্বাস্থ্যকর ঠোঁটের পরিচয়। তবে গোলাপি ঠোঁটের নারীদের পুরুষেরা বেশি পছন্দ করে। জানেন কি ঠোঁট কালো হয়ে যাওয়ার জন্য আমাদেরই কিছু খারাপ অভ্যাস দায়ী। জেনে নিন কী সেই অভ্যাস আর দ্রুত তা বদলে ফেলুন।

ঠোঁটকে শুষ্ক হতে দেবেন না ও কোষ দূর করুন
আর্দ্রতা হারালে ঠোঁট বিবর্ণ হয়ে যায়। ঠোঁটের রং কালো হয়ে যায়। তাই ঠোঁটের আর্দ্রতা সব সময়ই ধরে রাখা উচিত। এর জন্য ভাল লিপবাম খুব কাজের হতে পারে। কিন্তু আমরা অনেকেই লিপবাম সঠিক প্রয়োগ করি না। ঠোঁটকে শুষ্ক হতে দিই। ফলে ঠোঁট সৌন্দর্যতা হারায়। ঠোঁটের ত্বক খুবই পাতলা হওয়ায় দরুণে খুব দ্রুত তা শুষ্ক হয়ে ফেটে যায়। ঠোঁটকে ভাল রাখতে তাই প্রতিনিয়ত মরা কোষ দূর করা দরকার। আমরা কি তা আদৌ করি?

রোদে ঘোরাঘুরি ও ধূমপানঃ শুধু কি দেহের চামড়াই রোদে পুড়ে যায়? ঠোঁটেও একই ভাবে সানবার্ন হয়। অতি বেগুনি রশ্মি থেকে তাই ঠোঁটকে রক্ষা করা খুব জরুরি। খুব বেশি রোদে ঘোরাঘুরি করবেন না। প্রতিনিয়ত ধূমপানের অভ্যাসও কালো ঠোঁটের একটা বড় কারণ। সিগারেটের নিকোটিন ঠোঁটে প্রবেশ করে বিবর্ণ করে তোলে ঠোঁটকে।

ঠোঁটের যত্নঃ সবচেয়ে দায়ী ঠোঁটের যত্ন না নেওয়ার অভ্যাস। আমরা যতটা মুখের ত্বকের উপর নজর দিই, তার বিন্দুমাত্রও কিন্তু ঠোঁটের দিকে দিই না। সুন্দর গোলাপি ঠোঁট পেতে এই অভ্যাসও বদলাতে হবে।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *