Home / মনের জানালা / কোন রাশির জাতক-জাতিকেরা প্রেমে প্রতরণা করে? রাশি দেখে জেনে নিন!

কোন রাশির জাতক-জাতিকেরা প্রেমে প্রতরণা করে? রাশি দেখে জেনে নিন!

রাশিফলে অনেকেই বিশ্বাসী। প্রেমের ক্ষেত্রে অনেকেই রাশিফল যাচাই করে দেখেন। রাশিচক্রের বিচারে প্রেম-ভালোবাসার ক্ষেত্রে কেমন হবেন সেটা আগেভাগেই আভাস দেওয়া সম্ভব।মেষ রাশির সঙ্গে সিংহ রাশির দীর্ঘস্থায়ী সম্পর্ক গড়ে তোলাটা জীবনে আনে শুভ পরিবর্তন। তবে ধনু ও মেষের যোগাযোগ এবং স্থায়িত্ব অন্য যে রাশির থেকে বেশি। তবে তুলা ও মেষের প্রেম হয়ে উঠতে পারে রোমিও এই রাশিচক্রের মাধ্যমেই প্রতারণা করা জাতক-জাতিকাদেরও খুঁজে পাওয়া সম্ভব। তবে চলুন দেখে নেওয়া যাক যে ৫ রাশির জাতক-জাতিকেরা প্রতরণা করে-

১) মীন রাশি (১৯ ফেব্রুয়ারি থেকে ২০ মার্চ)
মীন রাশির জাতিকাদের মন-মানসিকতা একেক সময় একেক রকম দেখা যায়। তবে তারা অনেক বেশি আবেগপ্রবণ এবং দায়িত্ববান হয়ে থাকে। তারা বেশীরভাগ সময় বাস্তবতা মেনে নিতে চায় না, কিন্তু যেখানে রোমান্স বা মজাদার কিছু পায় তখনি সেখানে পৌঁছে যায় স্বার্থপরের মতো।

২) বৃশ্চিক (২৩ অক্টোবর থেকে ২১ নভেম্বর)
বৃশ্চিক রাশির জাতিকাদের বুঝতে একটু বেশিই অসুবিধা। একটু জটিল চরিত্রের। রাশিগত ভাবেই বৃশ্চিক জাতক-জাতিকারা গোপনীয়তা প্রিয়। বৃশ্চিক প্রায়ই নিজেকে সবচাইতে বিশ্বস্ত সঙ্গী বা সঙ্গিনী হিসেবে প্রমাণ করতে পারলেও প্রতারণার ক্ষেত্রেও তারা পিছিয়ে নন।

৩) সিংহ রাশি (২১ জুলাই থেকে ২১ আগস্ট)
সিংহ রাশির মানুষের অনেক বেশি ইগো সমস্যা থাকে। তারা নাটক, রোমান্স ও ঘুরাঘুরি অনেক পছন্দ করেন। তারা রাজার মত করে বাস করতে পছন্দ করে। কিন্তু তারা খুব বেশি ভালবাসা প্রবন হয়। যার কাছেই প্রেমের ডাক পায়, সেদিকেই সাড়া দেয়। কোন প্রেমই দীর্ঘদিন ধরে রাখতে পারে না এরা।

৪) তুলা রাশি (২৩ সেপ্টেম্বর থেকে ২২ অক্টোবর)
তুলা রাশির জাতক-জাতিকারা তখনই প্রতারণা করে, যখন বর্তমান সম্পর্কটি থেকে তাঁদের সকল চাওয়া-পাওয়া পুর্ন হয় না। ব্যাপারটি নিয়ে চরম অপরাধবোধে ভোগার কারণে লুকিয়ে রাখার চেষ্টায় সদা তৎপর থাকে তারা। ধরা পড়ার পর স্রেফ অস্বীকার করা তাঁদের একমাত্র হাতিয়ার। কিন্তু বারবার চাপ প্রয়োগ করলে তারা এক পর্যায়ে স্বীকারও করে এবং প্রতারণার কারণ বুঝিয়ে বলার চেষ্টা করে।

৫) মিথুন (২১ মে থেকে ২০ জুন)
সমস্ত রাশির মাঝে মিথুন জাতক-জাতিকারাই সম্ভবত সবচাইতে বেশি প্রতারক স্বভাবের। কারণে এই রাশির মানুষের মাঝে দ্বিমুখী সত্ত্বা প্রবলভাবে কাজ করে। প্রায় দেখা যায় মিথুন জাতক-জাতিকারা মানসিক ও শারীরিক চাহিদা মেটাতে দুজন ভিন্ন ভিন্ন মানুষের সঙ্গে জড়িত। মিথুনের প্রতারণা ধরা কঠিন, কেননা ধরা পড়ার পর তারা ঠিক তাই বলবে যা আপনি শুনতে চান এবং মন পুনরায় বিগলিত করে ফেলবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *