Home / স্বাস্থ্য-সেবা / পিরিয়ডের সময় কোন কোন খাবার খাওয়া একদম ঠিক না জেনে নিন!

পিরিয়ডের সময় কোন কোন খাবার খাওয়া একদম ঠিক না জেনে নিন!

পিরিয়ডের সময় কয়েকটা দিন নানা সমস্যা হয় কম বেশি সব নারীর। পিরিয়ডের সময় শরীরে নানান অস্বস্তি হয়। অনেক সময় প্রচণ্ড পেট ব্যাথা করে। শারীরিক এই অস্বস্তি থেকে মুক্তি পাবার জন্য আমরা অনেক কিছুই করি। কিছু কিছু খাবার আছে যেগুলোর জন্য এই অস্বস্তি, পেট ব্যাথা বেড়ে যায়। তাই সেই ধরনের খাবার এই সময় না খাওয়াই ভালো। আসুন জেনেনি কি কি খাবার এই সময় না খাওয়াই ভালো।

ফ্যাট যুক্ত খাবার
ফ্যাট যুক্ত খাবার পিরিয়ডের সময় না খাওয়াই ভালো। কারণ এই সময় শরীরে কিছু হরমনের পরিবর্তন হয়। তার ফলে পিরিয়ডের সময় বক্ষের আকৃতি বৃদ্ধি পায়। অর্থাৎ একটু ফুলে যায়। সেই সঙ্গে শরীরের ওজনও একটু বাড়ে। আবার পিরিয়ড কমে গেলে স্বাভাবিক হয়ে যায়। যেহেতু এই সময় শারীরিক ওজন একটু বাড়ে তাই, এই সময় ফ্যাট জাতীয় খাবার না খাওয়াই ভালো। কারণ এগুলি খেলে এমনিতেই খুব তাড়াতাড়ি ওজন বাড়ে। তাই ওজন অনেকটা বেড়ে যাবার সম্ভবনা থাকে।

মিষ্টি খাবার
পিরিয়ডের সময় মিষ্টি খাবার খাওয়া উচিত না। কারণ এই সময় শরীরে হরমনের কিছু পরিবর্তনের ফলে রক্তে সুগার লেবেলের পরিবর্তন হতে পারে। আর খুব মিষ্টি খাবার খেলে রক্তের সুগার লেবেল স্বাভাবিক নাও থাকতে পারে। রক্তের সুগার লেবেল বেড়ে যেতে পারে। সুগার লেবেল স্বাভাবিক না থাকলে শরীরে নানা রকম সমস্যা হয়। মেজাজ খারাপ, ঘন ঘন মেজাজ পরিবর্তন ইত্যাদি। এছাড়াও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার ওপর প্রভাব পরে। তাই এই সময় খুব বেশি মিষ্টি খাওয়া ঠিক নয়। ফাইবার, টাটকা শাক সব্জি এসব খাওয়া উচিত।

প্রসেস ফুড
এই সময় নুন কম খাওয়া উচিত। কারণ আমরা আগেই জেনেছি এই সময় বক্ষ, শরীর একটু ফুলে যায়। ওজন একটু বেড়ে যায়। আর নুন শরীরে জলের মাত্রা আরও বাড়িয়ে দেয়। তার ফলে শরীর আরও বেশি ফুলে যাবার সম্ভবনা থাকে। তাই প্রসেস ফুড খেতে বারন করা হয় কারণ এগুলি ঠিক রাখার জন্য, এতে প্রিজারভেটিভ হিসাবে প্রচুর নুন মেশানো থাকে। তাই এই সময় অতিরিক্ত নুন একদমই ভালো না শরীরের জন্য। এই সময় প্রসেস ফুডের বদলে টাটকা খাবার খাওয়া উচিত।

চা ও কফি
পিরিয়ডের সময় চা, কফি খুব কম খেতে বলা হয়। কারণ এগুলিতে থাকা ক্যাফেইন এই সময় শরীরের জন্য ঠিক নয়। কারণ এই সময় অনেকেরই পেট ব্যাথা করে, আর এগুলি বেশি খেলে পেট বাথা বেড়ে যাবার সম্ভবনা থাকে। এছাড়া এই সময় এমনি শরীরে অস্বস্তি হয়, তার ফলে ভালো করে ঘুম হয়না, খাবার ইচ্ছা থাকেনা। আবার মন মেজাজও অনেক সময় ভালো থাকেনা। আর এই জাতীয় পানীয় এই শারীরিক অস্বস্তি গুলিকে আরও বাড়িয়ে দেয়। তাই এই সময় দিনে খুব বেশি চা, কফি, নরম পানীয় না খাওয়াই ভালো।

অ্যালকোহল
এই সময় অ্যালকোহল খুব ক্ষতিকারক। অতিরিক্ত অ্যালকোহল পান করলে অনিয়মিত পিরিয়ডের একটি সম্ভবনা থাকে। শুধু অনিয়মিত পিরিয়ড নয় এটি শারীরিক অস্বস্তিকে বহুগুনে বাড়িয়ে দেয়। তাই ওই কয়েকটি দিন অ্যালকোহল বন্ধ রাখাই ভালো।

দুধ জাতীয় খাবার
দুধ জাতীয় খাবার যেমন, পনির, চিজ, আইসক্রিম এগুলি খুব বেশি খেতে বারন করা হয়। কারণ এই খাবার গুলির ফলে পেটে ব্যাথা বেড়ে যাবার সম্ভবনা থাকে। পেটের ভেতর অস্বস্তি বেড়ে যায়। এছাড়াও এগুলিতে বেশি ফ্যাট থাকে। আগেই বলেছি ফ্যাট জাতীয় খাবার এই সময় খাওয়া ভালো না। তাই শুধু দুধ জাতীয় খাবার নয়, পাঁঠার মাংস সেটিও বেশি খাওয়া ঠিক নয়। এতেও খুব বেশি ফ্যাট থাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *