Home / দাম্পত্য জীবন / সহবাসের সময় নারীরা যে ৭ ভুল একবার হলেও করে দেখে নিন!

সহবাসের সময় নারীরা যে ৭ ভুল একবার হলেও করে দেখে নিন!

পুরুষরা যৌনতা বিষয়টি নিয়ে যত খোলামেলা আলোচনা করতে স্বচ্ছন্দ, নারীরা ততটাই বিমুখ৷ স্বভাবত এই কারণের বশেই যৌনতার ক্ষেত্রে কিছু কিছু ভুল করে ফেলেন নারীরা৷ না চাইলেও এই ভুল তাঁদের হয়েই থাকে৷ অন্তত একবার এই ভুল করেই ফেলেন মহিলারা৷

কী সেই ভুলগুলি?

যৌনতায় উদ্যোগ না নেওয়া
মহিলারা অনেক সময় ধরেই নেন যে, যৌনক্রিয়ার উদ্যোগ নেবেন পুরুষরাই৷ খানিকটা লজ্জা ও সংস্কার বশতই তাঁরা এরকম করে থাকেন৷ কিন্তু পুরুষদেরও তো উল্টো প্রত্যাশা থাকে৷ তাঁরাও তো চান, কোনও একদিন যৌনতার উদ্যোগ নিক সঙ্গীনিও৷ ঠিক এই জায়গাতেই ভুল করে ফেলেন মহিলারা৷ যৌনতার ইচ্ছে হয়ত তাঁদের ষোলআনাই থাকে, কিন্তু মুখ ফুটে প্রকাশ না করায় ভুল বার্তা যায় পুরুষের কাছে৷

নগ্নতায় লজ্জা
সঙ্গমকালে কীরকম দেখতে লাগবে এই ভেবে অনেক নারীই সংকোচে থাকেন৷ শারীরিক গঠন বা চেহারা নিয়ে হীনমন্যতায় ভোগেন৷ তার প্রভাব পড়ে যৌনতাতেও৷ এই ভয় থেকে বা লজ্জার কারণেই নগ্নতায় আপত্তি তোলেন নারীরা৷ কিন্তু এটা একটা ভুল ধারণা৷ সঙ্গম মুহূর্তে সঙ্গী বা সঙ্গীনি কীরকম দেখতে তা আদৌ ম্যাটারই করে না৷ সুতরাং এ ভাবনা মন থেকে তাড়ানোই ভাল৷

অতীতের সম্পর্ক মনে রাখা
যৌনতার সময় মনে অতীত টেনে আনা এক বড় ভুল৷ হতে পারে অন্য কারও সঙ্গে সঙ্গমের অভিজ্ঞতা আপনার আছে৷ কিংবা আপনার সঙ্গীর এরকম অভিজ্ঞতার কথা আপনি জানেন৷ কিন্তু নিজেদের যৌনতার মধ্যে যদি অতীত চলে আসে তবেই গণ্ডগোল৷ কোনওরকম তুলনা না টানাই শ্রেয়৷

নিজের সন্তুষ্টি নিজে চেয়ে না নেওয়া
নারীর যৌন সন্তুষ্টি অনেকটাই নির্ভর করে পুরুষের উপর৷ কিন্তু তা একান্তই পুরুষের দায় ভাবলে ভুল হবে৷ কেননা যৌনতার ক্ষেত্রে পুরুষটিও সন্তুষ্টি খোঁজেন, তাঁরও আলাদা পছন্দ, অপছন্দ আছে৷ তাই নিজের চাহিদা নিজেকেই প্রকাশ করতে হবে৷ সন্তুষ্টি না পেলে পুরুষসঙ্গীর ঘাড়ে দোষ চাপিয়ে দেওয়া সহজ৷ কিন্তু তাতে তো কাজের কাজ কিছু হবে না৷ তাই দোষারোপ না করে, এমনকী আক্ষেপও না করে, নিজে যেটা চান সেটা খুলে বলুন৷

সঙ্গীর প্রশংসা না করা
যৌনতার শেষে সঙ্গীর প্রশংসা না করা নারীদের একটা বড় ভুল৷ এতে পুরুষ সঙ্গীটি ভুল ভাবতে পারেন৷ তাঁর মনে হতেই পারে, তিনি নারীকে সঠিক সন্তুষ্টি দিতে পারলেন না৷ যদি তাই হয়, তবে পুরুষ সঙ্গীকে তা বলা প্রয়োজন৷ কী কারণে সন্তুষ্টি এল না তা খতিয়ে দেখা প্রয়োজন৷ আর যদি তা না হয়, তবে খোলমনে সঙ্গীর প্রশংসা করুন৷ যাতে তাঁর আত্মবিশ্বাস বেড়ে যায়৷ তাতে লাভ? পরবর্তী যৌনতার ক্ষেত্রেই টের মিলবে৷

পরীক্ষা না করা
বেশিরভাগ মহিলাই যৌনতার ক্ষেত্রে একই রকম কায়দা-কানুন পছন্দ করেন৷ কিন্তু তাতে যৌনতায় একঘেয়েমি আসতে বাধ্য৷ পুরুষটির ক্ষেত্রেও একই জিনিস পছন্দের নাও হতে পারে৷ তাই এক্ষেত্রে অভ্যাস একটু বদলানোই ভাল৷ যৌনতার জায়গা বা পজিশনে একটু আধুটু বৈচিত্র আনলে যৌনজীবনই আরও খানিকটা স্পাইসি হবে৷

হাতের নখ না কাটা
নখের মায়া ছাড়তে পারেন না অনেক মহিলাই৷ হাতে সাধ করে বড় বড় নখ রাখেন৷ কিন্তু চরম মুহূর্তে সেগুলিই বড় বেরসিক হয়ে উঠতে পারে৷ মৃদু নখরাঘাত যৌনতার মজা যতখানি বাড়িয়ে দিতে পারে, বড় আঁচড়ে ততখানিই তালভঙ্গ করতে পারে৷ অসাবধানে বড় নখের আঁচড়ে পুরুষ সঙ্গীর মুডটিই মাঠে মারা যেতে পারে৷ এই ভুলটা কিন্তু ইচ্ছে করলেই এড়ানো যায়৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *