Home / অন্যান্য / প্রথম শারীরিক মিলন এত কষ্টের ছিল যে আমি অজ্ঞান হয়ে যাই!

প্রথম শারীরিক মিলন এত কষ্টের ছিল যে আমি অজ্ঞান হয়ে যাই!

(রিমু) ছদ্মনাম দয়া করে আমার নামটা গোপন রাখবেন। আমাদের সম্পর্ক ৫/৬ বছর হয়েছে। একসময় সে আমাকে ছাড়া কিছু বুঝতনা। সব সময় আমার সাথে কথা না বললে তার চলতই না কিন্তু সে এখন অনেক বদলে গেছে। আমাকে আগের মতো আর সময় দেয় না, কথাও বলে না। প্রায় সবসময় আমার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করে।

এই কয়েক বছরে সে আমার আড়ালে চার-পাঁচটি মেয়ের সঙ্গে সম্পর্ক করেছে। আমি তখন কিছু বুঝি নি। পরে আমি বুঝতে পারি যে ও আমাকে ঠকাচ্ছে। এই বিষয় গুলো নিয়ে যখন আমি কথা বলি, তখন সে আমার কাছে মাফ চায়। বলে, আর কখনো এসব করবো না। এভাবে অনেকবার আমি মাফ করে দেই। আমি যখন বাধ্য হয়ে বলি যে সম্পর্কটা আর রাখবোনা তখন সে খুব কান্নাকাটি করে। কিন্ত কিছুদিন পর থেকে দেখা যায় আবার সেই আগের মতো শুরু করে। মাঝখানে ওর সাথে একটি মেয়েকে নিয়ে খুব সমস্যা হয় আমাদের মাঝে। ও ফেসবুকের মাধ্যমে একটি মেয়ের সঙ্গে সম্পর্ক করে।

আমি যখন জানতে পারি তখন বাঁধা দিই। তখন সে আবারও আগের মত আকুতি মিনতি করে এবং বলে যে সে আর ওই মেয়ের সঙ্গে কথা বলবে না । কিন্ত আমার মনে হয় এখনও ঐ মেয়ের সাথে তার যোগাযোগ আছে। কারন তার ব্যবহারে আমি বুঝতে পারি এখন সে কথায় কথায় আমাকে খুব গালি দেয়, বকা দেয়। একদিন ইমোশনালি ব্ল্যাকমেইল করে সে আমাকে ওর ফ্লাটে নিয়ে যায়। সে আমাকে অনুরোধ করে শারীরিক সম্পর্ক করার জন্য। আমি প্রথমে রাজি না হলেও পরে বাধ্য হই। সেই দিন আমাদের শারীরিক সম্পর্ক হয়। এক পর্যায়ে আমি অজ্ঞান হয়ে যাই। শারীরিক সম্পর্ক হওয়ার পর তার মাঝে একটা বিশাল পরিবর্তন দেখা দিল। রিতিমতো আমাকে সে এড়িয়ে চলতে লাগল।

ও এখন বলে আমকে আর ওর জীবনে দরকার নেই। নতুন করে কারো সঙ্গে সম্পর্ক করবে। তাঁকেই বিয়ে করবে। আবার কিছুদিন পর দেখা যায় আমাকে বলে, বিয়ে করলে আমকেই করবে। কিন্তু আমাকে এখন আগের মতো কল, মেসেজ কিংবা সময় দেয় না। আমি ফোন দিলে বকা দেয়। প্রায় মোবইল বন্ধ করে রাখে। অন্যদিকে আমার পরিবারের সবাই আমাকে বিয়ে দিতে চায়। আমি কখনো রাজি হই, আবার কখনো হইনা। আমি ওকে খুব ভালবাসি, তাই আমার জীবনে অন্য কাওকে মানতে পারছি না। একদিকে বাবা-মা অন্যদিকে আমার প্রেমিক। আমি কী করবো বুঝি না। আমার এখন কী করা উচিৎ? ওকে আমি পেলেও কি সুখী হবো?

পরামর্শঃ আপনার চিঠি পড়ে যে কেউই বুঝবে যে, আপনার প্রেমীকের ভালোবাসা আপনি না, আপনার দেহ। সে কেবল শরীরের আনন্দ পাওয়ার জন্য আপনাকে ব্যবহার করছে। ভালো করে খোঁজ নিয়ে দেখুন আগের যে ৫/৬ জন মেয়ের সাথে তার রিলেশন ছিল হয়ত তাদের সবার সাথে শারীরিক সম্পর্ক করেছে। সে কখনোই আপনাকে বিয়ে করবে না। আর বিয়ের কথা বলছে হয়ত আপনাকে হাতে রেখে আপনার শরীরটাকে আর কয়েকবার ভোগ করার জন্য।আর ভুল করে যদি করেও ফেলে, আপনি আজীবন নির্যাতিত হবেন এই ছেলেটির কাছে।

আপনার নিজের জীবন এখন আপনাকেই বাঁচাতে হবে, এই ছেলেটির কাছ থেকে নিজেকে সরিয়ে আনুন। পরিবার কিন্তু কখন কারও খারাপ চায় না। এটা আপনিও ভালো করে জানেন। তাই আপনার উচিত হবে পরিবারের কথা মেনে নেওয়া। একবার তো নিজের ইচ্ছাকে প্রাধান্য দিয়ে দেখেছেন আসলে কত বড় ক্ষতি হয়েছে। এখন নিজেকে তার কাছ থেকে গুটিয়ে নিন। এখনো দেরি হয়নি তার সাথে আপনি সব সম্পর্ক ত্যাগ করুন। ভুল করেও তাকে আর একবার পরিক্ষা করতে যাবেন না, তাতে করে হয়তো আপনার বড় কোন বিপদ হতে পারে। আমি শুধু আমার মতামত জানালাম বাঁকি সিদ্ধান্ত আপনার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *