Home / ফিটনেস / মাত্র ১ মাসে পেটের ভুঁড়ি কমান, এই ছোট্ট ঘরোয়া উপায়ে

মাত্র ১ মাসে পেটের ভুঁড়ি কমান, এই ছোট্ট ঘরোয়া উপায়ে

দিন দিন আপনার ওজন বেড়ে শরীরটা ভারি হয়ে যাচ্ছে? কোন পোশাকেই আর মানাচ্ছে না? বিশেষ করে মেদ বেশি জমছে পেটে। আজকাল বেশিরভাগ মানুষই এই সমস্যায় ভুগছেন। এতে অস্বস্তি বাড়ছে, সেই সঙ্গে দেখতেও বেশ খারাপ দেখাচ্ছে। এই অবস্থায় কয়েকটি সহজ নিয়ম মেনে চললেই আপনি নিজেই পারেন পেটের মেদ আর চর্বি কমিয়ে ফেলতে। এজন্য মেনে চলুন এই নিয়মগুলো –

প্রতিদিন তিন কোয়া রসুন:
খালি পেটে ২/৩ কোয়া রসুন চিবিয়ে খেয়ে নিন, এর ঠিক পর পরই পান করুন লেবুর রস। এটি আপনার পেটের চর্বি কমাতে দ্বিগুণ দ্রুতগতিতে কাজ করবে। তাছাড়া দেহের রক্ত চলাচলকে সহজ করবে।

লেবুর রস ও চিনিযুক্ত খাবার বাদ :
সকালে ঘুম থেকে উঠে এক গ্লাস গরম জলে অর্ধেকটা লেবু চিপে নিন, প্রতিদিন সকালে এটি পান করুন। ফলে দেহের বাড়তি মেদ ও চর্বি কমে যাবে। মিষ্টি বা মিষ্টি জাতীয় খাবার, ভাজা খাবার, সফ্ট-ড্রিঙ্ক এবং তেলে ভাজা স্ন্যাকস খাবার এড়িয়ে চলুন। কারণ এই জাতীয় খাবারগুলো শরীরের বিভিন্ন অংশে খুব দ্রুত চর্বি জমিয়ে ফেলে। এগুলো পরিবর্তে ফল ও সব্জি খেতে পারেন।

কিছু মশলা খান ও পর্যাপ্ত ঘুমান:
রান্নায় অতিরিক্ত মশলা ব্যবহার করা ঠিক নয়। তবে কিছু মশলা ওজন কমাতে সাহায্য করে। রান্নার দারুচিনি, আদা ও গোলমরিচ ব্যবহার করুন। এগুলো রক্তে শর্করার পরিমাণ কমাবে ও পেটের মেদ কমাবে। ঘুম ভালো হলে শরীরে মেদ কম জমে এবং জমা মেদও ঝরতে সাহায্য করে। তাই দিনে সঠিক সময়ে ঘুমান।

মানসিক চাপ কম করুন :
মানসিক চাপ যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলবেন। কারণ মানসিক চাপের ফলে শরীরে নানারকম সমস্যা তৈরি হয়। যার ফলে শরীরে মেদ জমতে শুরু করে।

প্রচুর জল খান:
প্রতিদিন প্রচুর জল পান করার ফলে এটা আপনার শরীরের মেটাবলিজম বাড়ায় ও রক্তের ক্ষতিকর উপাদান মূত্রের মাধ্যমে বের করে দেয়। মেটাবলিজম বাড়ার ফলে দেহে চর্বি জমতে পারে না ও বাড়তি চর্বি ঝরে যায়।

অ্যাক্টিভ থাকুন:
আমরা অফিসে এক জায়গায় বসে বসেই কাজ করি। তাই সবসময় বাসে, অটোয়, রিকশায় না উঠে মাঝেমাঝে হাঁটুন। লিফটে না উঠে সিড়িতে উঠুন। দৌঁড়ান, ব্যায়াম করুন। জমে থাকা মেদ ঝরে যাবে।

প্রতিদিন ফল ও সবজি খান:
প্রতিদিন ফল ও সবজি খাবার চেষ্টা করুন। এতে আপনার শরীর পাবে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, মিনারেল ও ভিটামিন। আর এগুলো আপনার পেটের চর্বি কমাবে সহজেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *